ফরিদগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনায় থানায় পাল্টা-পাল্টি অভিযোগ

এস এম ইকবাল, ফরিদগঞ্জ: ফরিদগঞ্জ উপজেলার সুবিদপুর পূর্ব ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক মনির হোসেনের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার করাকে কেন্দ্র করে পাল্টা-পাল্টি অভিযোগের ভিত্তিতে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেনের কার্যালয়ে সমাধান করে দিয়েছেন।

৩০ জুলাই শনিবার সকালে উভয় পক্ষকে নিয়ে থানার ওসি মোহাম্মদ শহীদ হোসেন ও তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রুবেল ফরাজিসহ ওসির কার্যালয়ে বসে উভয় পক্ষেকে সমঝোতা করে দেয় এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ করবে না বলে উভয় পক্ষ অঙ্গিকার নামা প্রধান করে।

জানাযায়, রাজনীতি ও সামাজিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মনির হোসেন ও স্থানীয় কতেক ব্যক্তির সাথে দীর্ঘদিন দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। সে আলোকে, গত ২৫ জুলাই মনির হোসেনের বিরুদ্ধে একই এলাকার সাবেক এক ইউপি সদস্যের স্ত্রীর সাথে কথা বলাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় একটি মহল তাদেরকে বিভিন্ন ভাবে হেনস্তা ও ফেইসবুকে পেক আইডির মাধ্যমে তাদের ঘিরে বিভিন্ন অপপ্রচার করে।

এ বিষয়ে মনির ও স্থানীয়রা পৃথক পৃথক থানায় লিখিত অভিযোগ করে। পুলিশ ঘটনার তদন্তে সত্যতা না পেয়ে উভয় পক্ষকে থানায় আসতে বলে। এরপর স্থানীয় দুটি পক্ষের মধ্যে কথা কাটা কাটি হয় এবং এলাকায় আইনশৃঙ্খলা অবনতির কথা বিবেচনা করে পুলিশ দুই পক্ষকে থানায় হাজির হতে বলেন।

উক্ত বিষয়ে ইউপি সদস্য আব্দুল মমিন দুলাল ও স্থানীয় আব্দুল মমিন বলেন, মনিরের বিরুদ্ধে যে অপপ্রচার করা হয়েছে তা সম্পন্ন ভিত্তিহিন। মনিনের সন্মান নষ্ট করার জন্য স্থনীয় একটি চক্র এই কাজ করেছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য জাকির হোসেন বলেন, অপ্রত্যাশিত ভুল বুঝাবুঝির কারনে যে ঘটনাটি ঘটেছে তা দুঃখজনক। ওসি স্যারের মধ্যস্ততায় সমাধান হয়েছে এবং ওসি স্যার সকলকে সতর্ক করেন ও এ ধরনের কাজ করবেনা বলে অঙ্গিকার নামা দেন।

এবিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন বলেন, সুবিদপুর পূর্ব ইউনিয়নের তেলিশাইর এলাকার তুচ্ছ ঘটনা ও তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপ-প্রচারের ঘটনায় দুটি লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে উভয় পক্ষকে আমি থানায় ডেকে এনে তা সমাধান করে দিয়েছি। তারা উভয় পক্ষ ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ করবেনা বলে অঙ্গিকার নামা প্রধান করে।

একই রকম খবর