ফরিদগঞ্জে পরিত্যক্ত ঘরে আগুন, খবর পেয়ে পরিদর্শনে কর্মকর্তারা

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে একটি পরিত্যক্ত ঘর আগুনে পুড়ে গেছে। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার ৫ নম্বর পূর্ব গুপটি ইউনিয়নের বীরেশ্বর কর্মকারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। তবে কেউ হতাহত হননি।

বীরেশ্বর কর্মকারের স্বজন খোকন কর্মকার বলেন, তাঁদের পরিবারের সবাই চাঁদপুর শহরে বাস করেন। সেখানে তাঁরা স্বর্ণের ব্যবসা করেন। গতকাল রাতে তাঁদের পরিত্যক্ত ওই ঘরে কে বা কারা আগুন ধরিয়ে দিলে আশপাশের সবাই চিৎকার শুরু করেন। খবর পেয়ে পার্শ্ববর্তী রামগঞ্জ থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আসার আগেই এলাকাবাসীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এই খবর পেয়ে আজ বুধবার সকালে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ ও পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

৫ নম্বর পূর্ব গুপটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুল গনি পাটোয়ারী বলেন, ওই বাড়ির পাশে হিন্দু ও মুসলিমদের বাড়িঘর আছে। অন্য সব কটি বাড়ি অক্ষত আছে।

রামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের লিডার আবদুর রশিদ বলেন, ঘরটি পরিত্যক্ত হলেও ঘরের ভেতর বেশ কিছু লাকড়ি ছিল। ঘরে কেউ না থাকলেও ঘরের সামনে সব সময় বৈদ্যুতিক বাতি জ্বলত। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে এই ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। বাড়ির বৈদ্যুতিক মিটারটি একদম জ্বলে–পুড়ে যায়।

ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদ হোসেন বলেন, এটি নাশকতা, নাকি দুর্ঘটনা, সেটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

একই রকম খবর