ফরিদগঞ্জ ঘরে আগুন দেওয়ার অভিযোগ !

ফরিদগঞ্জ ব্যুরোঃ ফরিদগঞ্জ গাব্দেরগাঁও মালেক মিজি বাড়িতে রাতের আঁধারে পাকঘরে আগুন দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায় প্রবাসী আনোয়ার হোসেন ও প্রবাসী নাজির হোসেন দুই আপন ভাই প্রবাসী দ্বীর্ঘদিন যাবৎ তাদের মায়ের সম্পত্তি নিয়ে ঝগড়া বিবাদ হয়েছে এবং উভয় পক্ষের কোর্টে ২ টি করে মামলা চলমান রয়েছে।

কয়েক ধপা শালিসী বৈঠক বসেও সমাধান হয়নি। পুর্ব শত্রুতার যের ধরে গত ৯ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বেলা ১২ ঘটিকায় আনোয়ার হোসেনের ছোট ভাই নাজির হোসেনের স্ত্রী পিংকি ও তার শাশুড়ী , প্রবাসী আনোয়ার হোসেন এর স্ত্রী জেসমিন আক্তারের উপরে অতর্কিত হামলায় এত জেসমান আক্তার ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি হয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে ঐ দিনই সন্ধ্যায় বাড়িতে আসলে,হঠাৎ রাত ১১ টায় তাদের পাক ঘরে আগুন দেখে ডাক চিৎকার শুনে মটর দ্বারা পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে,এতে তেমন কোন ক্ষতি না হলেও জেসমান আক্তার ভয় দিন কাটাচ্ছেন বলে জানা যায়।

এই বিষয় জেসমিন আক্তার জানান কারা আমাদের পাকঘরে আগুন লাগিয়েছে আমরা দেখি নাই,কিন্তু ঐদিন সকাল বেলায় আমার দেবরের স্ত্রী পিংকি ও শাশুড়ী মিলে আমার ঘরে ডুকে হঠাৎ অতর্কিত হামলা চালায়,কেন এমন করলো তারা আমি জানি না,আমি আইনগত ব্যব¯হা গ্রহণ করবো।

জেসমিন আক্তারের ননদ কামরুন নাহার তুহিন বলেন হঠাৎ বেলা ১২ টার দিকে আমার বড় ভাবি জেসমিন আক্তারের ডাক চিৎকার শুনে ঘরে এসে দেখি ছোট ভাবি পিংকি ও তার শাশুড়ী মিলে বড় ভাবিকে মিলে মারধর করতেছে,পরে আমরা তাদেরকে সরিয়ে দেই,ঐদিন রাতেই বড় ভাবির পাকঘরে কারা আগুন লাগিয়ে দেয় সেটা আমরা দেখি নাই,তবে আগুন লাগছে এটা সত্যি আমরাসহ মটরদিয়ে পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনি।

 

একই রকম খবর