বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে ফাইনালে চাঁদপুর পৌরসভা 

ইব্রাহিম খান : চাঁদপুরে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের ব্যবস্থাপনায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাতীয় গোল্ডকাপ (অনুর্দ্ধ-১৭) ফুটবল টুর্নামেন্টের ২য় সেমিফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর)  বিকাল সাড়ে ৩টায় টুর্নামেন্টের ২য় সেমিফাইনালে অংশগ্রহণ করেন চাঁদপুর পৌরসভা বনাম শাহারাস্তি উপজেলা।

খেলার শুরুতেই গোল করতে মরিয়া হয়ে ওঠে স্বাগতিক চাঁদপুর পৌরসভা একাদশ। আক্রমন পাল্টা আক্রমনে খেলা ব্যশ উপভোগ্য হয়ে ওঠে। স্টাইকার আরিফ ও তুষারের চমকপদ গোলে প্রথম আর্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় চাঁদপুর পৌরসভা।

গোল পরিষদে শাহারাস্তি উপজেলা বহুবার আক্রমন করা সত্বেও গোল শূন্য নিয়ে প্রথম আর্ধে মাঠ ছাড়তে হয়। ২য় আর্ধেও পুরো মাঠে বল দখলের লড়াইয়ে আধিপত্যে ছিলো চাঁদপুর পৌরসভার। গোলের ব্যবধান বাড়াতে সুযোগ বুঝে মাঝ মাঠ থেকে কাটিয়ে চাঁদপুর পৌরসভার তুষার ও রিংকু আরো দুটি গোল করেন। ফলে ৪-০ গোলে জয় নিয়ে ফাইনালে ওঠারর রাস্তা পরিস্কার করেন চাঁদপুর পৌরসভা।

খেলা চলাকালীন সময়ে উপস্থিত ছিলেন,চাঁদপুর জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান খান , চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ, জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ জামাল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজেষ্টেট মোহাম্মদ আল মাহমুদ জামান, নির্বাহী ম্যাজেষ্টেট মারুফা সুলতানা খান হীরামনি, চাঁদপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবু,চাঁদপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র ছিদ্দিকুর রহমান ঢালী, জেলা ফুটবল উপ কমিটির সাধারন সম্পাদক শাহির পাটওয়ারী,চাঁদপুর পৌরসভার সচিব আবুল কালাম ভূইয়া, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মফিজ উদ্দিন হাওলাদার, কাউন্সিলর মাহাফুজুর রহমান দোলন,হাবিব দর্জি,ডি এম শাহাজাহান, নাছির চোকদার, শাহালম বেপারী, আঃ মালেক বেপারী, মহিলা কাউন্সিলর ফরিদা ইলিয়াছ,আয়েশা রহমান, লায়লা হাসান চৌধুরী, শাহনাজ আলমগীর, পৌর কর্মকর্তা রিয়াজ উদ্দিন রাসেল, এমদাদুল হক মিলন, জেলা ক্রীড়া অফিস কর্মকর্তা আব্দুল কুদ্দুস প্রমুখ।

রেফারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মাসুদুর রহমান মাসুম,সেলিম আহমেদ টুমু,ইমরান হোসেন রানা ও নুরে আলম। ধারা বিবরনীতে ছিলেন রাসেল হাসান।

আগামি ২২ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকাল ৩টায় ফাইনালে অংশগ্রহন করবেন চাঁদপুর পৌরসভা বনাম কচুয়া উপজেলা।
প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরন করবেন, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রান মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম।

একই রকম খবর

Leave a Comment