প্রতারিত হচ্ছে ক্রেতারা, বার্মার ইলিশ চাঁদপুরের বলে বিক্রি !

স্টাফ রিপোটার : চাঁদপুর মাছঘাটে প্রচুর বার্মার ইলিশ আমদানী হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ সব চক-চকে বার্মার ইলিশকে চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনা নদীর ইলিশ বলে বিক্রি করছে বিক্রেতারা। ফলে প্রতারিত করা হচ্ছেন ক্রেতারা।

মা’ইলিশ রক্ষা অভিযানের ২২দিন পর চাঁদপুর মৎস্য আড়ৎ গুলোতে প্রচুর ইলিশ আমদানি হয় এবং দামও ছিল অনেক কম। যা ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষয় ক্ষমতার ভিতরে ছিল।

গত কয়েকদিন যাবৎ চাঁদপুরে ইলিশের দাম বেড়ে যাওয়ায় এক শ্রেনীর অসাধু ব্যবসায়ী ক্রেতাদের ঠকিয়ে মোটা অংকের অর্থ উর্পাজনের জন্য বার্মার ইলিশ আমদানি করছে বলে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অভিযোগ উঠেছে। এ ইলিশ দেখতে পুরোপুরি চাঁদপুরের রূপালী ইলিশের মত। চাঁদপুরের ইলিশ ক্ষেতে সুস্বাদু আর বার্মার ইলিশ খেতে কোন স্বাদ গন্ধ কিছুই নেই।

এছাড়া চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনায় এখনও প্রচুর পরিমানে ডিমওয়ালা মা’ ইলিশ ধরা পড়ছে। বুধবার(০৭ নভেম্বর) দুপুরে চাঁদপুর মাছ ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, প্রচুর পরিমানে বার্মার ইলিশসহ বিভিন্ন স্থানের ইলিশের আমদানী হয়েছে। ইলিশ এখন ক্রেতার ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকায় চাঁদপুর জেলাসহ জেলার বাহির থেকে ও ক্রেতারা পদ্মা-মেঘনা নদীর সুস্বাদু ইলিশ মাছের স্বাদ গ্রহন করার জন্য চাঁদপুরে ছুটে আসছে ইলিশ ক্রয় করার জন্য।
এদিকে চাঁদপুর নৌ-সীমানার পদ্মা-মেঘনা নদীতে প্রচুর মা’ইলিশ জেলেদের জালে ধরা পড়ছে এবং জেলেদের মাধ্যমে চাঁদপুরের মৎস্য আড়ৎ গুলোতে আসছে। ওইদিন ইলিশসহ বিভিন্ন স্থানের প্রচুর ইলিশ আমদানী ছিল।

চাঁদপুর মৎস্য বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মো: শবেবরাত বলেন, ‘চাঁদপুর মাছ ঘাটে গত কয়েক দিন যাবত প্রচুর ইলিশের আমদানী রয়েছে। সাথে বার্মার ইলিশের আমদানীও আছে অনেক। আমাদের সমিতির বাহিরের এক শ্রেনীর ব্যবসায়ী বাইরের ইলিশকে চাঁদপুরের ইলিশ বলে বিক্রি করে ক্রেতাদের সাথে প্রতারনা করছে। বিষয়টি সমিতির মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।’

এ বিষয়ে ইলিশ গবেষক ড. আনিসুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘ইলিশ মাছ সারা বছরই ডিম ছাড়ে। কিন্তু নির্ধারিত এ ২২ দিনকে ইলিশ প্রজননের প্রধান সময় হিসেবে ধরা হয়েছে। ইলিশ নভেম্বরে ও ডিম ছাড়া এটা স্বাভাবিক ব্যাপার। ডিম ছাড়া নিয়ে অভাক হওয়ার কিছু নেই। ইলিশ পুরো নভেম্বরেও প্রচুর ডিম ছাড়বে। এখন কাজ হচ্ছে, নভেম্বর-ডিসেম্বর ২ মাস ইলিশে পোনা জাটকা রক্ষা করা সকলের দায়িত্ব। এ ব্যাপারে জনসচেতনতা বৃদ্বি করা আবশ্যক ।

একই রকম খবর

Leave a Comment