বিকাশে টাকা নেয়ার ঘটনায় চাঁদপুর মডেল থানায় জিডি

চাঁদপুর খবর রিপোর্ট : কুমিল্লা বোর্ডের পরিদর্শক আজহারুল ইসলামের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহ্তলী জিলানী চিশতী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাহাদাৎ হোসেনের নিকট থেকে বিকাশে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি সংঘবদ্ধ চক্র । বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদীর নির্দেশক্রমে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাহাদাৎ হোসেন ওই চক্রের বিরুদ্ধে গতকাল ১০জুন (বৃহস্পতিবার) বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় জিডি করা হয়েছে। জিডি নম্বর-৬৪৭, তারিখ: ১০জুন ২০২১খ্রিস্টাব্দ।

জিডিতে শাহতলী জিলানী চিশতী উচ্চ বিদ্যালযের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাহাদাৎ হোসেন জানান, গত ৯জুন ২০২১ ইং তারিখ দুপুর ১টায় কুমিল্লা বোর্ডের পরিদর্শক আজহারুল ইসলাম এর নাম ভাঙ্গিয়ে আমার নিকট থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি প্রতারক চক্র। প্রতারক ০১৬৩৮৬০৮৩৯৯ এ নম্বর থেকে ফোন করে বিদ্যালযের স্বীকৃতি নবায়নের করার জন্য টাকা লাগবে বলে দ্রুত বিকাশ নম্বরে টাকা পাঠাতে বলে। প্রথমে ১৫০০/ (একহাজার পাঁচশত) টাকা এবং পরে ১০০০/- (একহাজার) টাকা নেয়ার পর আবার টাকা চাইলে আমার সন্দেহ হয়। বিষয়টি বিদ্যালয় পরিদর্শক আজহারুল ইসলাম এর সাথে অফিসিয়াল মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, বোর্ড কখনও এভাবে টাকা গ্রহন করেনা এবং তিনি প্রতারক চক্র থেকে সর্তক থাকতে বলেন। তাই আমি এ ব্যাপারে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির পরামর্শক্রমে চাঁদপুর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করেছি। আমি আশা করছি চাঁদপুর মডেল থানা এ ব্যাপারে তদন্ত করে দ্রুত প্রতারক চক্রকে সনাক্ত করে আটক করবে।

উল্লেখ্য, গত ৯জুন (বুধবার) পরিদর্শক আজহারুল ইসলামের নাম বলে প্রতারক ০১৬৩৮৬০৮৩৯৯ উক্ত নাম্বার থেকে মোবাইলে ফোন আসে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাহাদাৎ হোসেনের মোবাইল নাম্বার ০১৯২২৮৮২৪৪২ কাছে। অপর প্রান্ত থেকে বলা হয় আপনার স্কুলের স্বীকৃতি নবায়ন করার জন্য টাকা লাগবে। দ্রুত উক্ত বিকাশ নাম্বারে টাকা পাঠান। তিনি না বুঝে সাথে সাথে প্রথমে ১৫০০ টাকা ।

পরে আবার ১০০০টাকা বিকাশ করে। পুনরায় আবারও টাকা চাইলে তার সন্দেহ হয়। পরে সরাসরি কুমিল্লা বোর্ডের পরিদর্শক আজহারুল ইসলামের অফিসিয়াল মোবাইল ০১৮৮৪১০৪৬৬৪ নাম্বারে সত্যতা জানতে ফোন করলে তিনি বিদ্যালয়কে জানান এ ধরনের কোন ফোন তিনি করেননি। কিংবা কোন টাকাও তিনি চাননি। এটা সম্পুর্ন প্রতারনা। এরকম হার হামেশাই ঘটছে। তার নামে কেই টাকা চাইলে সত্যতা যাচাই-বাছাই ছাড়াও টাকা দেওয়া ঠিক হবে না।

এ বিষয়টি জানার পর শাহতলী জিলানী চিশতী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিদ্যালয়ের সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী সন্ধ্যায় কুমিল্লা বোর্ডের পরিদর্শক আজহারুল ইসলামের সাথে মোবাইলে কথা বলেন। তিনি বিষয়টি জানালে পরিদর্শক আজহারুল ইসলাম দৈনিক চাঁদপুর খবরকে বলেন ,আমাদের কুমিল্লা বোর্ডের ওয়েবসাইটে এ ধরনের প্রতারনার বিষয়টি অবহিত করা আছে। বোর্ডের পক্ষ থেকে জিডিও করা হয়েছে।

কেউ যাতে এ ধরনের প্রতারিত না হয়। ভোলা থেকে এ ধরনের প্রতারক চক্র কাজ করছে। নিরীহ শিক্ষকদের কাছে থেকে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। গোয়েন্দা সংস্থা, পুলিশ র‌্যাব বিষয়টি তদন্ত করছে। অচিরেই এই চক্রের মুখোস উম্মেচিত করা হবে। এ ব্যাপারে পত্রিকায় ও গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে আরো ভালোহবে। শিক্ষকদেরও সচেতন হবে। কেউ ফোন করলে সরাসরি বোর্ডের সাথে যোগাযোগ করতে অনুরোধ থাকবে ।

একই রকম খবর