মতলব উত্তরে চাঁদা না দেওয়ায় যুবকের হাত কেটে দিল

মতলব উত্তর সংবাদদাতা: চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার গোপালকান্দি গ্রামে চাঁদা না দেওয়ায় শরিফুল ইসলাম নামে এক যুবকের হাত কেটে দিয়েছে চাঁদাবাজরা। তাকে উদ্ধার করতে গেলে তার পিতা ইউপি সদস্য মনির হোসেন সহ তার পরিবারের আরো তিন জনকে জখম করে চাঁদাবাজরা।

মনির হোসেনের স্ত্রী, পরিবারের সদস্য ও গ্রামবাসী বলেন, গোপালকান্দি গ্রামের হোসেন ঢালীর ছেলে জয়নাল আবেদীন, আঃ ছাত্তারের ছেলে রানা আহমেদ রফিক, তার ছেলে রাকিব প্রধান, জাকির হোসেনের ছেলে নাইম প্রধান, জাহাঙ্গীর প্রধানের ছেলে আরমান প্রধান, ফারুক প্রধানের ছেলে সারোয়ার প্রধান, জাহাঙ্গীর প্রধানের ছেলে বাবু প্রধান,

শহিদ উল্লাহর ছেলে স্বপন প্রধান, আইচ্ছাল্লার ছেলে মামুন ও রানা আহমেদ রফিকের ছেলে রিফাত ব্রিকস ফিল্ড ব্যবসায়ী মনির হোসেন মেম্বারের কাছ চাঁদা দাবি করলে তারা চাঁদা দিতে রাজি না হলে তার ছেলে শরিফুল ইসলামকে বেরীবাঁধের উপরে পেয়ে অস্ত্র নিয়ে হামরা করে। উল্লেখিত ব্যক্তিরা শরীফকে মারাত্মক জখম করে। শরীফের মাথা লক্ষ করে চাইনিজ কুড়াল দিলে কোপ দিলে হাত বাড়িয়ে দিলে তার হাত কেটে যায়।

পরে তার পিতা মনির হোসেন মেম্বার ও অন্যান্য লোকজন এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারধর করে। বর্তমান শরীফ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

আহত শরীফের স্ত্রী বলেন, যদি আমার স্বামীর কিছু হয়ে যেতো তাহলে আমার ছোট বাচ্চা নিয়ে কই যেতাম, কোথায় থাকতাম। আমার অবস্থা কি হতো। আমি আইনের কাছে সুষ্ঠু বিচার চাই।

শরীফের মা বলেন, বিগত দিন ধরে চাঁদাবাজ রফিক ও তার ছেলেরা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে রাজি না হলেই মারধর করে। গত কয়েকদিনে একাধিকবার আমার ছেলেদেরকে মারছে। এই চাঁদাবাজদের কাছে আমরা জিম্মি হয়ে আছি।

ইউপি সদস্য মনির হোসেন বলেন, গত তিন বছর ধরে রফিক, তার ছেলেরা ও দলবল নিয়ে আমাকে ও আমার পরিবারকে হয়রানি করে আসছে। আমরা কিছু বললেই হামলা করে। গত ইউপি নির্বাচনেও আমাকে অনেক হুমকি ধামকি দিয়েছে। কিন্তু জনগণ আমার সাথে আছে এবং আমাকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করেছে। তারপর থেকে চাঁদাবাজরা আরো বেশি বেপরোয়া হয়ে পড়েছে। আমি প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু বিচার চাই।

একই রকম খবর