মতলব উত্তরে ১৮০০ লিটার চোরাই ডিজেল জব্দ

মতলব উত্তর সংবাদদাতা: চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মেঘনা নদীর দশানী লঞ্চঘাট এলাকায় সোমবার দুপুরে উপজেলা প্রশাসন, মোহনপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি ও কোস্টগার্ড অভিযান চালিয়ে ১ হাজার ৮শ’ লিটার চোরাই ডিজেল জব্দ করা হয়। জব্দকৃত তেলের বাজার মূল্য ১ লাখ ৪৪ হাজার টাকা।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মতলব উত্তর উপজেলা সহকারি (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. হেদায়েত উল্লাহ এর নেতৃত্বে উপজেলার দশানী লঞ্চঘাট এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় মেঘনা নদীতে চলাচলকারী বিভিন্ন জাহাজ থেকে অবৈধভাবে ডিজেল চোরাই সংগ্রহ করে নদীর তীরে সংরক্ষন অবস্থায় রাখা ১ হাজার ৮শ’ লিটার ডিজেল জব্দ করে। এসময় মোহনপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মনিরুজ্জামান, কোস্ট গার্ড প্রতিনিধি শাহাদাৎ হোসেন’সহ সঙ্গীয় ফোর্স উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মেঘনা নদীর কয়েকটি অংশে তেলবাহী ট্যাংকার ও জাহাজ অতিক্রমের সময় জাহাজ কর্মচারীদের যোগসাজশে স্থানীয় তেল চোরাকারবারি চক্র স্বল্প মূল্যে ভোজ্য ও জ্বালানি তেল নামিয়ে দীর্ঘদিন যাবত পাচার করে আসছে। বছরের পর বছর ধরে তেলের চোরাকারবার চললেও কোনো প্রতিকার বা শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।

প্রতিদিন সন্ধ্যা হলেই নদীর বুকে নোঙ্গর করা তেলের জাহাজ থেকে চোরাকারবারিদের তেল চুরির মহোৎসব শুরু হয়। চলে গভীর রাত পর্যন্ত। তেল চোরাকারবারিরা নদীর পাড়ে অবৈধ দোকান গড়ে তুলেছে। চোরাই তেল ওসব দোকান হয়ে পাইকারি ও খুচরা গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে যায়। ছোট দোকান, অয়েল ফিলিং স্টেশন, গাড়ির গ্যারেজ, বড় শিল্পকারখানাসহ বিভিন্ন জায়গাতেই ওই চোরাই তেল যায় বলে জানা গেছে।

মতলব উত্তর উপজেলা সহকারি (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. হেদায়েত উল্লাহ বলেন, মেঘনা নদীতে চলাচলকারি বিভিন্ন জাহাজ থেকে অবৈধ ভাবে তেল নামিয়ে ব্যবসা করে আসছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। এ উপজেলার মেঘনা নদীর তীর মোহনপুর, দশানী, বাহাদুরপুর, সটাকী’সহ কয়েকটি স্থানে এ কাজ হয় বলে জানতে পেরে অভিযানে নামি। অভিযানে প্রায় ১ হাজার ৮শ’ লিটার ডিজেল জব্দ করা হয়।

একই রকম খবর