মতলব বালিকা উবিতে ‘মা’ সমাবেশ

সমির ভট্টাচার্য্য : গত ৩০ জুলাই শনিবার বেলা এগারোটায় মতলবগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার মানোন্নয়ন, বাল্য বিবাহ ও ইভটিজিং প্রতিরোধে গণ সচেতনতা সৃস্টির লক্ষ্যে মা সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, প্রত্যেক মায়েরা তার ছেলে-মেয়ে কখন স্কুলে আসে, কখন বাসা-বাড়ীতে ফিরে এবং যাদের সাথে মিশে তাদের ভাল মন্দ খোজ খবর নিতে পাড়লে কারো সন্তানই খারাপ দিকে ধাবিত হবে না। কলেজ পর্যায়ে না যাওয়া পর্যন্ত সন্তানদের হাতে মোবাইল ফোন দেয়া যাবেনা। কারন বর্তমানে মোবাইলের কারনে অধিকাংশ স্কুলে পড়ুয়া ছেলে মেয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

এছাড়া বাসা বাড়ীতে লেখাপড়া করার সময় দরজা জানালা খোলা রাখতে হবে।এতে করে সন্তানদের প্রতি বাবা মায়ের দৃষ্টি থাকবে। দরজা জানালা বন্ধ করে লেখাপড়া করতে সুযোগ দিলে তার মোবাইল ফোনে আসক্ত হয়ে পড়বে। তাই এ বিষয়ে মায়েদের শতর্ক থাকতে হবে। স্কুলে আসা যাওয়ার পথে কোথাও কেউ উত্তক্ত করলে ৯৯৯ অথবা স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে ফোন দিয়ে জানালে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মায়েরদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন,ভাল ছেলে বা লোভে পড়ে কেউ বাল্য বিবাহ দিবেন না। আপনার সন্তানের প্রতি রীতিমত টেককেয়ার নিলে তিনিই একদিন উচ্চ শিক্ষা লাভ করে দেশের উচ্চপদস্থ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অধিষ্ঠিত হবে।

মতলব গঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর সারোয়ার সরকার লিখনের সভাপতিত্বে ও সহকারী শিক্ষক মোজাহের হোসেনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন উপজেলা মাধ্যমে শিক্ষা অফিসার মোঃ আব্দুর রহিম খান, মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ (তদম্ত) মোঃ হারুন অর রশীদ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ কবির হোসেন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আল মহসীন প্রধান এবং অভিভাবকবৃন্দরা । এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক মনির হোসেন, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ইকবাল হোসেন সরকার,নাজমুল সরকার, মিরান হোসেন মিয়াজী, সংরক্ষিত মহিলা অভিভাবক সদস্য নয়ন মনি, বহরী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলামসহ অভিভাবক শিক্ষক শিক্ষিকা ও ছাত্রীরা ।

একই রকম খবর