কুমিল্লা সেনানিবাসে চাঁদপুরের মুক্তিযোদ্ধা-জনপ্রতিনিধি নেতৃবৃন্দের অংশ গ্রহণ

স্টাফ রিপোর্টার : কুমিল্লায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উদযাপন করা হয়েছে। সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০১৮ উপলক্ষে ৩৩ পদাতিক ডিভিশন ও কুমিল্লা এরিয়া ২১ নভেম্বর বুধবার বিকেলে কুমিল্লার ময়নামতি সেনানিবাসের ‘এম আর চৌধুরী’ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রতি বছরের ন্যায় চাঁদপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার এম এ ওয়াদুদের নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধারা অংশ গ্রহন করেন। এছাড়াও চাঁদপুর জেলার জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক দলের নেতৃবন্দ, সাংবাদিক ও ব্যাবসায়ীরা অংশ গ্রহন করেছেন।

আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, কুমিল্লা সেনানিবাসের এরিয়া কমান্ডার ও ৩৩ পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং জিওসি মেজর জেনারেল আহম্মদ তাবরেজ শামস চৌধুরী। বক্তব্যে মহান মুক্তিযুদ্ধে জীবন উৎসর্গ করা সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি।

পরে চাঁদপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা এম এ ওয়াদুদ, কুমিল্লা জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শফিউল আহমেদ বাবুলসহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া, নোয়াখালী, ফেনী ও ল²ীপুর জেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এবং আগত অতিথিদের নিয়ে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে কেক কাটেন জিওসি মেজর জেনারেল আহম্মদ তাবরেজ শামস চৌধুরী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন এবিএম তাজুল ইসলাম, কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, সংসদ সদস্য ওবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরী, সংসদ সদস্য তাজুল ইসলাম, সংসদ সদস্য রওশন আরা মন্নান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর, পুলিশ সুপার মোঃ সৈয়দ নুরুল ইসলাম, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদ, জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, চাঁদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গণি পাটওয়ারী, কুমিল্লা জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব ওমর ফারুক।

এছাড়াও চাঁদপুর জেলা থেকে আরো উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক জীবন কানাই চক্রবর্তী, ফরিদগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী, মতলব উত্তর উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা এম এ কুদ্দুস, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন্নাহার চৌধুরী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহকারী কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা মহসীন পাঠান, সহকারী কমান্ডার মৃনাল কান্তি সাহা, সহকারী কমান্ডার ইয়াকুব আলী মাষ্টার, সহকারী কমান্ডার আবুল হাশেম, সাবেক কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা শাহাদাত হোসেন সাবু পাটওয়ারী, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার সিরাজুল ইসলাম বরকন্দাজ, মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাশার সদ্দার, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক মির্জা জাকির, মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম সংসদ চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি সাংবাদিক কে এম মাসুদ প্রমুখ।

এছাড়াও চাঁদপুর চেম্বর অব কামার্সের সাবেক সভাপতি সুবাস চন্দ রায়, চাঁদপুর জেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহির হোসেন পাটওয়ারী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক এস এম জয়নাল আবেদীনসহ মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যবৃন্দ। কুমিল্লা সেনানিবাসের উর্দ্ধতন সেনা কর্মকর্তাবৃন্দ ও তাদের পুরবারের সদস্যবৃন্দ। সাবেক সেনাকর্মকর্তা, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনের প্রতিনিধি, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, সম্পাদক ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের এইদিনে সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সমন্বয়ে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী গঠিত হয়। এরপর এই বাহিনী পাকিস্তানী দখলদার বাহিনীর বিরুদ্ধে সর্বাত্মক অভিযান শুরু করে এবং এতে মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জন ত্বরান্বিত হয়।
দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ঐতিহাসিক এই দিন প্রতি বছর সশস্ত্র বাহিনী দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

একই রকম খবর

Leave a Comment