মুজিববর্ষ উদযাপনের ক্ষণ গণনাযন্ত্র স্থাপন

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর শহরের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা সড়কে মুক্তিযুদ্ধের স্মারক ভাস্কর্য ‘অঙ্গীকার’ সম্বলিত লেকের পশ্চিম পাড়ে মুজিববর্ষ উদযাপনের ক্ষণ গণনাযন্ত্র স্থাপন করা হয়েছে।

১ জানুয়ারি জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে এই ক্ষণ গণনার যন্ত্রটি বসানো হয়। যার নিরাপত্তায় পুলিশ সুপারের নির্দেশে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

২৪ ঘন্টা এটি নজরদারিতে রেখেছে পুলিশ সদস্যরা। মূলত এটির সৌন্দর্য রক্ষার স্বার্থেই নিরাপত্তা দিচ্ছে পুলিশ। আগামী ১০ জানুয়ারি ২০২০ বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস থেকে ৬৭ দিনের ক্ষণ গণনা শুরু করে ১৭ মার্চ মুজিববর্ষের সূচনায় ক্ষণ গণনাকাল শেষ হবে।

ক্ষণ গণনা যন্ত্রের উপরিভাগের একটি বৃত্তে লেখা হয়েছে ‘কোটি মানুষের কণ্ঠস্বর’ এবং অপর বৃত্তে মুজিব শতবর্ষ। পাশেই বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ সম্বলিত আরো একটি স্থাপনায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বর্ষের নির্দেশনা করে লেখা হয়েছে ১০০।

আগামী ১০ জানুয়ারি সকালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণ গণনার উদ্বোধন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউসের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে ৫ জানুয়ারি রোববার সকালে এক প্রস্তুতিমূলক সভা করেছেন জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ।

উক্ত সভায় জেলা প্রশাসক (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ আব্দুল্লা আল মাহমুদ জামান, এডিএম মোহাম্মদ জামাল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এসএম জাকারিয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জাহেদ পারভেজ চৌধুরী সহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসনের প্রস্তুতি সভা সূত্রে জানা যায়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় চাঁদপুরসহ দেশের ৫৪টি জেলায় এই ক্ষণ গণনা যন্ত্র স্থাপন করছে। আগামী ১০ জানুয়ারি বিকেলে এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক পরিবেশনাও থাকবে।

ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের স্বাধীনতার মহান স্থপতি। কৃতজ্ঞ জাতির সঙ্গে চাঁদপুরের মানুষ সারা বছরজুড়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপন করবে। জন্মশত বছরের প্রত্যাশিত আগমনকে স্মরণীয় করে রাখতে ক্ষণ গণনা যন্ত্র প্রতিস্থাপন করা হয়েছে।

একই রকম খবর