মেঘনা ট্রেনের আঘাতে অজ্ঞাত ব্যক্তির মৃত্যু

স্টাফ রির্পোটার : চাঁদপুরে আবারো আন্তঃনগর মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনের আঘাতে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে।

১৩ সেপ্টেম্বর সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে চাঁদপুর শহরের দর্জিঘাট এলাকার রেলওয়ের ৩নং পুল সংলগ্ন কুড়ি বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির আনুমানিক বয়স হবে প্রায় ৪০ থেকে ৪৫ বছর।তবে তার কোন নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি।

ঘটনার পর রাত সাড়ে ১০টার দিকে জিআরপি থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়য়। স্থানীয়রা ধারণা করছেন নিহত ব্যক্তি হয়তো পথচারীর ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত সাড়ে ৯টায় চট্টগ্রাম থেকে আন্তঃনগর মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেন চাঁদপুরের উদ্দেশে আসে। ট্রেনটি ঘটনাস্থল থেকে চলে যাওয়ার পর রাত সাড়ে ১০টায় স্থানীয় কয়েকজন ওই পথ দিয়ে বাড়ি ফেরার সময় নিহতের মরদেহে রেললাইনের পাশে উপর হয়ে পড়ে থাকতে দেখেন। ট্রেনের আঘাতে নিহত ব্যক্তির মুখমণ্ডল বিবর্ণ হয়ে পড়ে এবং তার হাত-পা গুলো ভেঙ্গে চুরে মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত জখম হয়ে পড়েন।

চলন্ত ট্রেনের আঘাতে তার মাথা থেকে মগজ বের হয়ে মুখমণ্ডল ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় তার চেহারাও কেউ চিনতে পারেন নি। তাই তার পরিচয় সনাক্ত করতে পারেনি কেউ।

প্রাথমিকভাবে স্থানীয় কেউই নিহতের সম্পর্কে স্পষ্ট কোনো তথ্য দিতে পারেনি। কেউ বলছেন সে হয়তো পথচারী ছিলেন, কেউ বলছেন সে মানসিক ভারসাম্যহীন।

তবে প্যান্ট শার্ট পরিহিত নিহত ভদ্র ব্যক্তিটিকে দেখে মানসিক রোগী মনে হয়নি। অনেকেই ধারণা করছেন সে হয়তো রেলওয়ের তিন নম্বর পুলটি পার হতে গিয়ে কিংবা রেল পথ ধরে হাটতে গিয়ে অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে ট্রেনের আঘাতে এ দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন।

চাঁদপুর রেলওয়ে (জিআরপি) থানার এ এস আই হাসান আহমেদ জানান ট্রেন দুর্ঘটনায় এক অজ্ঞাত ব্যক্তি নিহত হওয়ার খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেছি এবং লাশের সুরতহাল তৈরি করে পোস্ট মর্টেমের জন্য মর্গে পাঠানো হবে। আমরা তার পরিচয় শনাক্ত করার চেষ্টা করবো। যদি তার পরিচয় শনাক্ত হয় তাহলে তার আত্মীয় স্বজনদের কাছে লাশ বুঝিয়ে দিবো।

আর না হলে আমরা চাঁদপুর আঞ্জুমানে খাদেমুল ইনসান এর মাধ্যমে তার দাফন কাফনের ব্যবস্থা করা হবে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তার কোনো নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

একই রকম খবর