মৈশাদী মডেল ইউপি চেয়ারম্যান মানিকের বিরুদ্ধে গুজুব ও অপপ্রচার

চাঁদপুর খবর রিপোর্ট : চাঁদপুর সদর উপজেলার ৬নং মৈশাদী ইউনিয়নের জনপ্রিয় চেয়ারম্যান সরকারিভাবে জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত মডেল চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিকের নামে গত ৮মে মিথ্যা , ভিত্তিহীন গুজুব ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রতিবাদের ঝড় বইছে ।

দল-মত নির্বিশেষে ফেসবুকসহ সর্বস্তরে এই প্রতিবাদ চলছে । অবিলম্বে গুজুর ছড়ানো ও অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহনসহ ধিক্কার জানিয়েছে জনগন । ঘুরে ফিরে সবার একটাই বক্তব্য শুধুমাত্র চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিকের জনপ্রিয়তা ও সততার ইষানীত হয়ে ইউনিয়নের একটি চμ এ মিথ্যা গুজুব ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে ।

বিশেষ করে জানা গেছে, মৈশাদী ইউনিয়নের একটি চক্র নিজেদের পছন্দের লোকজনকে সরকারি ত্রাণের বরাদ্দের তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্তির জন্য প্রায়ই সময় বেআইনী ভাবে তৎপরতা চালায় । যেখানে সরকারি নির্দেশিত কোন নীতিমালাই ওই চμটি মানতে নারাজ । এ নিয়ে অত্র ইউনিয়নের নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিক ও ইউপি মেম্বারদের সাথে ওই চμটির মতবিরোধ চলে আসছে।

বিশেষ করে করোনার মতো দুর্যোগের মধ্য দিয়ে যেখানে অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মানিকসহ জনপ্রতিনিধিরা দিন-রাত জনসেবায় নিয়োজিত ,সেখানে ওই চμটি জনগনের পাশে না দাঁড়িয়ে এই সময় নিজের পছন্দের লোকজনকে অসহায় মানুষের বরাদ্দকৃত ত্রাণ দিতে উঠে পড়ে লেগেছে । আর এই নিয়ে উল্টো মিথ্যা অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে । সরকারি নীতিমালা অনুযায়ী জনপ্রতিনিধিরা সরকারি বরাদ্দের ত্রান ,ভিজিডি,ভিজিএফ, চালসহ সকল বরাদ্দের নিরপেক্ষ ভাবে তালিকা প্রনয়ণ এবং তালিকা অনুযায়ী সরকারের নির্ধারিত ট্যাগ অফিসারের উপস্থিতিতে পরিষদে বিলিবন্টণ করছে ।যা কিনা সারা জেলায় প্রশংসিত হয়েছে ।

গতকাল শুক্রবার এসব বিষয় নিয়ে অত্র মৈশাদী ইউনিয়ন পরিষদে ইউনিয়নের ১২জন ইউপি মেম্বার সভা করে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিকসহ পরিষদের কার্যক্রমের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার,গুজুব ছড়ানোর তীব্র প্রতিবাদ নিন্দা জানিয়েছেন ।সভায় এর বিচার না হওয়া পর্যন্ত ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম বন্ধসহ প্রয়োজনে গনপদত্যাগ করারও ঘোষনা দেন মেম্বাররা ।

জানা গেছে,করোনার শুরু হওয়ার আগ থেকে চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিক দল-মত নির্বিশেষে নিজের অর্থায়ানে অত্র ইউনিয়নের জনগণের জন্য বহুবিধ যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহন করেন ।বিশেষ করে নিজের অর্থায়ানে ইউনিয়নবাসীর সহযোগিতায় ইউনিয়নের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ত্রাণ দেওয়া,অসহায়দের বাড়ীতে বাড়ীতে ত্রাণ পৌঁছানো,ট্রাকে করে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া,জনসাধারণের জন্য সততা স্টোর চালু,চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহন করেন ।

যা কিনা শুধু চাঁদপুর জেলা নয়,সারা দেশে প্রশংসিত হয়েছে । এছাড়াও তিনি ইউনিয়ন পরিষদের সকল কার্যক্রম ডিজিটালে রুপান্তর, পরিষদের হল রুমকে ডিজিটাল কনফারেন্স রুশ,মাদক নিমূল,নিজের অর্থায়ানে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা,বাল্যবিবাহ রোধ, ইউনিয়নে শিক্ষা ব্যবস্থা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করেন ।

একই রকম খবর