রাজরাজেশ্বর ইলিশ জব্দ ও পুলিশের সাথে সংঘর্ষে ৮০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ইব্রাহিম খান : চাঁদপুর সদর উপজেলার মেঘনার রাজরাজেশ্বর চরে ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীরের বাড়িতে অভিযান চালানোর সময় পুলিশের সাথে জেলে সংঘর্ষ ও বিপুল পরিমানে ইলিশ জব্দের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলায় জাহাঙ্গীর মেম্বারকে প্রধান আসামি করে ১৫ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক প্রায় অজ্বাত ৮০ জনের বিরুদ্ধে গতকাল ২৭ অক্টোবর চাঁদপুর মডেল থানার এসআই মোঃ কামাল উদ্দিন বাদি হয়ে এই মামলাটি দায়ের করেন।মালমার আসামিরা হলেন ১।জাহাঙ্গীর আলম সরকার(ইউপি সদস্য)৪৫, পিতা মৃতঃ হাফেজ আলী সরকার ২।শাহজালাল বন্দুকসী (৩৭),পিতা মৃত জাফর উল্লাহ বন্দুকসী ৩।হাসান আলী দেওয়ান (৬০),পিতা মৃত রহমত আলী দেওয়ান ৪।ইকবাল বেপারী (৩৬),পিতা মৃত মঞ্জিল বেপারী ৫।মকবুল প্রধানিয়া (৩৭) পিতা রবিউল প্রধানিয়া ৬।তাজল দেওয়ান (৩৫) পিতা মনা দেওয়ান ৭। শফি দেওয়ান (৪০),পিতা মৃত লুৎফুর রহমান দেওয়ান ৮। সিদ্দিক বেপারী (৪০), পিতা সোলেমান বেপারী ৯। পারভেজ রনি (৩০),পিতা মৃত ইয়াকুব আলী গাজী ১০। ময়না বেগম (৩০), স্বামী শাহজালাল বন্দুকসী ১১। ফয়সাল বেপারী (৫০),পিতা অঞ্জাত ১২। কালা কোড়ালী (৩৫),পিতা অঞ্জাত ১৩। আব্দুল আলীম সরকার (৩৮),পিতা অঞ্জাত ১৪। ইসমাইল গাজী (৪০), পিতা অঞ্জাত ১৫। রফিক দেওয়ান (৩৫),পিতা অঞ্জাত।এরা সবাই রাজরাজেস্বর ইউনিয়নের বাসিন্দা।

এদিকে আলোচিত এই মামলটি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে চাঁদপুর মডেল থানার এসআই পলাশ বড়ুয়াকে। মামলার এজহার সূত্রে জানাযায়,রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের মেম্বার জাহাঙ্গীর সরকারের বাড়ি থেকে প্রায় ১০০ মন মা ইলিশ জব্দ করা হয়েছে।যার বাজার মূল্য আনুমানিক ৪০ লক্ষ্য টাকা।উল্লেখ্য ২৬ অক্টোবর গোপন তথ্যের ভিত্তিতে এডিএম মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চাঁদপুর সদর সার্কেল জাহেদ পারভেজ চৌধুরীর নেতৃত্বে জেলা টাস্কফোর্সে রাজরাজেশ্বর চরে ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান মা ইলিশ জব্দ করলে ইউপি সদস্য প্রায় ২৫০ -৩০০ জেলেকে নিয়ে অভিযানের সদস্যদের উপর আক্রমন চালায়।এতে দুজন পুলিশ সদস্য আহত হয়।পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে পুলিশ ৪০ রাউন্ড ফাকা গুলি ছোড়ে। এ ঘটনায় পৃথক দুটি ধারায় মামলা রুজু হয়েছে বলে জানান সদর মডেল থানার তদন্ত ওসি মাহবুব মোল্লা।

একই রকম খবর

Leave a Comment