চাঁদপুর ডায়াবেটিক সমিতির উদ্যোগে রিজিওনাল ওয়ার্কশপ সম্পন্ন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : ‘শৃঙ্খলা জীবন’ এই শ্লোগানে চাঁদপুর, কুমিল্লা, ফেনী, নোয়াখালী, ল²ীপুর, রায়পুর, কোম্পানীগঞ্জ, চৌদ্দগ্রাম, রামগঞ্জ ডায়াবেটিক সমিতির অংশগ্রহণে এবং চাঁদপুর ডায়াবেটিক সমিতির আয়োজনে রিজিওনাল ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৬ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী ওয়ার্কশপ হাসপাতালের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

দিনব্যাপী ওয়ার্কশপটি দুটি পর্বে তিন পর্বে অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টায় উদ্বোধনী পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান। হাসপাতালের জুনিয়র সিস্টেম এনালিস্ট উজ্জ্বল হোসাইনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রথমে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করে হাসপাতালের স্বাস্থ্য প্রশিক্ষক মুহাম্মদ জাকির হুসাইন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন হাসপাতালের অবৈতনিক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ জাহাঙ্গীর আখন্দ সেলিম। ওয়ার্কশপের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির অ্যাফিলিয়েটেড অ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা ডাঃ ওয়াজেদুল ইসলাম খান।

উদ্বোধনী পর্বে প্রধান অতিথি ও জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান বলেন, আজকে ৯টি ডায়াবেটিক সমিতির নির্বাহী পরিষদ, চিকিৎসক, নিউট্রিশন অফিসার, হেলথ এডুকেটর ও মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট অংশগ্রহণ করেছেন। আমি আশা করছি, আজকের এ ওয়ার্কশপের মাধ্যমে আপনাদের মাধ্যমে ডায়াবেটিক হাসপাতালের সেবার মান আরও বৃদ্ধি পাবে। তিনি বিভিন্ন জেলা থেকে আগত অন্যান্য ডায়াবেটিক সমিতির অংশগ্রহণকারীদের ধন্যবাদ জানান।

সকালের পর্বে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর ডায়াবেটিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব মোশতাক হায়দার চৌধুরী, ড. শায়ের গফুর, সমিতির সম্মানিত সদস্য আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, সুভাষ চন্দ্র রায়, ডাঃ মোঃ একিউ রুহুল আমিন, কাজী শাহাদাত, আলহাজ্ব এমএ বারী খান, পরেশ চন্দ্র সাহা, আলহাজ্ব আবুল কালাম পাটওয়ারী, সমাজসেবা অধিদপ্তর চাঁদপুরের ডিডি রজত শুভ্র সরকার ও ডাঃ বিশ্বনাথ পোদ্দারসহ চাঁদপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালের চিকিৎসক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।
এছাড়া বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির অ্যাফিলিয়েটেড অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডাঃ রশিদ-ই-মাহবুব, বারডেম হাসপাতালের এন্ডোক্রাইনোলজিষ্ট ডাঃ তারিন আহমেদ, বারডেম হাসপাতালের সিনিয়র নিউট্রিশন অফিসার খালেদা খাতুন, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট হাসেম আলীসহ অন্যান্য ডায়াবেটিক সমিতির কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরে নয়টি ডায়াবেটিক সমিতির কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সমন্বয়ে গ্রুপ ডিসকাশন পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। গ্রুপ ডিসকাশন পর্বে ৪টি গ্রুপে অনুষ্ঠিত হয়। গ্রুপগুলো : অধিভুক্ত সমিতির নির্বাহী পরিষদ, চিকিৎসক, নিউট্রিশনিষ্ট/হেলথ এডুকেটর, মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট ইত্যাদি।

এরপর পবিত্র জুমআর নামাজের বিরতী ও মধ্যাহ্নভোজের পর অনুষ্ঠিত হয় ডায়াবেটিক আপডেট উপস্থাপন। উপস্থাপন করেন চাঁদপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোহাম্মদ মশিউর রহমান। এরপর শুরু হয় গ্রুপ ডিসকাশন পর্বের রিপোর্টিং। রিপোর্টিংয়ে চারটি গ্রুপের স্পীকার রিপোর্ট উপস্থাপন করেন। রিপোর্টে ডায়াবেটিক হাসপাতাল সমূহের চিকিৎসার মানোন্নয়ন, খাদ্য পুষ্টি, প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা ইত্যাদি বিষয়ে পরামর্শ ও মতামত প্রদান করেন। রিপোর্টিং ও সমাপনী অনুষ্ঠানে রিপোর্ট উপস্থাপন করেন এবং বক্তব্য রাখেন বারডেম হাসপাতালের মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট হাসেম আলী, সিনিয়র নিউট্রিশনিষ্ট খালেদা খাতুন, এন্ডোক্রাইনোলজিষ্ট ডাঃ তারিন আহমেদ, বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির উপদেষ্টা ডাঃ ওয়াজেদুল ইসলাম খান ও অ্যাফিলিয়েটেড অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডাঃ রশিদ-ই-মাহবুব, চাঁদপুর ডায়াবেটিক সমিতির সদস্য কাজী শাহাদাত। সবশেষে ধন্যবাদ ও সমাপনী ঘোষণা করেন চাঁদপুর ডায়াবেটিক সমিতির অবৈতনিক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ জাহাঙ্গীর আখন্দ সেলিম।

একই রকম খবর

Leave a Comment