রূপালী ইলিশের আড়ৎ এখন ফাঁকা

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনায় জেলেদের জালে রূপালী ইলিশ ধরা পড়ছে খুবই কম। শীত মৌসুমে এমনিতেও ইলিশের প্রাপ্যতা কম থাকে। যে কারণে পুরো জেলা জুড়েই ইলিশ ব্যবসায়ীদের বিক্রির অবস্থা মন্দা। অধিকাংশ সময় অবসর বসে থাকেন। ক্রেতা-বিক্রেতায় মুখোর আড়ৎগুলো এখন ফাঁকা। স্বল্প সংখ্যক ইলিশ নিয়ে জেলেরা আসলে তাৎক্ষনিক বিক্রি হয়ে যাচ্ছে খুচরা এবং পাইকারি।

রবিবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেলে সদর উপজেলার হরিণা ফেরিঘাট এলাকায় গিয়ে দেখাগেছে ইলিশের আড়ৎ পুরোই ফাঁকা। প্রায় ১০টি আড়ৎ এই ঘাটে। বেশ কয়েকজন আড়তদার থাকলেও ক্রেতার সংখ্যা খুবই কম। একটি আড়তে খুবই স্বল্প সংখ্যক ছোট সাইজের ইলিশ বিক্রির জন্য রাখা হয়েছে।

হরিণাঘাটের প্রবীণ মৎস্য ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম সৈয়াল কে বলেন, এ বছর মৌসুমেও ইলিশ কম ছিল। এখন শীত জেলেরাও ইলিশ খুবই কম পাচ্ছে। তবে ইলিশ জালেই মাঝে মাঝে ধরা পড়ছে পাঙ্গাস, আইড়সহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। তবে তাও সংখ্যা খুবই কম।

আরেক ব্যবসায়ী বিল্লাল হোসেন কে বলেন, মাছ না থাকলেও আড়তে এসে বসে থাকতে হয়। কারণ পাইকারী ব্যবসায়ীদের সাথে লেন-দেন থাকে। রূপালী ইলিশ কম পাওয়া যায়। তবে স্বল্প সংখ্যক যে ইলিশ পাওয়া যায় তাও দাম চড়া। ছোট সাইজের অর্থাৎ ৩শ’ থেকে ৫শ’ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৬শ’ থেকে ৭শ’ টাকা কেজি। এক কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ১৬০০ থেকে ১৭০০টাকা। তবে বড় সাইজের ইলিশ খুবই কম। পাঙ্গাস বিক্রি হচ্ছে ৬শ’ থেকে সাড়ে ৬শ’ টাকা কেজি।

চাঁদপুর শহরের নতুন বাজার ও ওয়ারলেছ বাজার ঘুরে দেখাগেছে দেশীয় রুই, কাতল, মৃগেল, পাবদা, পোয়া ও তেলাপিয়া মাছের আমদানি বেশী। মাত্র কয়েকজন মাছ ব্যবসায়ী বাজারে ইলিশ নিয়ে এসেছেন। দাম বেশী হওয়ার কারণে তাদের কাছে ক্রেতার আনাগোনা কম।

চাঁদপুরের ইলিশের পাইকারী বাজার বড় স্টেশন মাছঘাটের ব্যবসায়ী হজরত আলী বেপারী বলেন, সাগরের ইলিশের আমদানিও নাই এবং চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনায়ও পাওয়া যাচ্ছে না। কর্মচারী খরচ দেওয়ারমত অবস্থান নেই ব্যবসায়ীদের। শীত মৌসুমে ইলিশ কম পাওয়া যায়। তবে সাগরে ইলিশ ধরা পড়লে আমাদের আড়তেও আমদানি হয়। তবে কেউ কেউ এখন দেশীয় প্রজাতির হ্যাচারি থেকে আসা মাছ পাইকারি বিক্রি করেন।

চাঁদপুর সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা তানজিমুল ইসলাম কে বলেন, ইলিশ মাছ ডিম ছাড়ার পরে সাগরে চলে যায় কারণ এই সময়টাতে পদ্মা মেঘনা নদীতে ইলিশের খাবার কম থাকে। এরপর ফেব্রুয়ারি মার্চ মাসের দিকে জাটকাসহ ইলিশ আবার সাগর থেকে পদ্মা মেঘনায় আসে।

একই রকম খবর