শশুর-শাশুড়ির নির্যাতন সইতে না পেরে শাহরাস্তিতে গৃহবধু আত্মহত্যা!

রফিকুল ইসলাম পাটওয়ারী : চাঁদপুরের শাহ্রাস্তিতে শশুর-শাশুড়ির নির্যাতন সইতে না পেরে এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে । ঘটনাটি শাহরাস্তি উপজেলা টামটা উত্তর ইছাপুরা নলুয়া বাড়ীতে এই ঘটনাটি ঘটে।

মামলা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় কুমিল্লা চান্দিনা কৈলাইন পূর্ব বড় বাড়ী আলী হাছানের মেয়ে হাবীবা আক্তার (রিয়ামনি) সাথে ২০১৭ সালে ইসলামি সরিয়া মোতাবেক শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের হারুন রশিদের ছেলে মহিন উদ্দিন (২৬) এর সাথে বিয়ে হয়। তাদের ঘরে একটি কন্যা সন্তান জন্ম হয়।

বিয়ের এক বছর সুখশান্তিতে বসবাস করেন। পরবর্তীতে প্রতি নিয়তেই শাররীক ও মানসীক নির্যাতনের শিকার হতে থাকেন। এই নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে কয়েক বার শালিস দরবার হলেও সমাধান হয়নি রিয়া মনির উপর শাররীক ও মনসীক নির্যাতন। তারই সূত্র ধরে গত ১৫ই অক্টোবর দিবাগত রাতই পারিবারিক কোলহের জেদ রাতে যে কোন সময় রিয়া মনি নিজ ওড়না দিয়ে ঘরের লড়া সাথে ফাঁস দেন।

খবর পেয়ে শাহরাস্তি মডেল থানা অফিসার ইনর্চাজ শাহ আলম এলএলবি দূত পুলিশ পরিদর্শক আবদুল মান্নান (তদন্ত) ও এসআই মাইনউদ্দিন কে পাঠিয়ে লাশ উদ্ধার করেন। এবং ডাক্তারি পরিক্ষার জন্য চাঁদপুরে প্রেরণ করেন।

এই নিয়ে এলাকায় বিভিন্ন গুনজনের সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন উঠে এটা কি হত্যা? নাকি আত্মাহত্যা। এই বিষয়ে হাবিবা আক্তার রিয়া মনির মা বাদী হয়ে শাহরাস্তি মডেল থানা একটি মামলা রুজু করেন। মামলা নাম্বার ১৪, তারিখ: ১৬/১০/২০২০ ধারা ৩০৬/১০৯ পেনেল কোর্ড।

তাৎক্ষনিক ওসি শাহ আলম এলএলবি নিদের্শনায়। আবদুল মান্নান পুলিশ পরির্দশক তদন্ত ও এসআই মাইনউদ্দিনের প্রচেষ্টায় ০৪ (চার) জন আসামী গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। এবং তাদেরকে বির্গ আদালতে পেরণ করেন।

 

একই রকম খবর