শাহতলীতে মায়ের সাথে অভিমান করে যুবকের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

চাঁদপুর খবর রিপোর্ট ঃ চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের পুরাতন ইউনিয়ন পরিষদের উত্তর পাশের শাহতলী গাজী বাড়ি (সাবেক দফাদার বাড়ী ) নিবাসী হাফেজ মো: মিলন গাজী ঘরের পাশের পুরাতন ড্রেজারের বুস্টার ঘরে আড়ার সাথে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

গতকাল ১৮ মে (বুধবার) সকাল ১০টা থেকে নিখোঁজ হন। পরে বহু খোঁজাঁখুজি করে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় দুপুর ২টায় পাশ^বর্তী বাড়ির দুলাল গাজী ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে দেখতে পান। পরে দুলাল গাজী’র ডাক চিৎকার দিলে স্থানীয় জনগণ ও তার পরিবারের সদস্যদের আত্মহত্যার বিষয়টি জানতে পারেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, তার মায়ের সাথে কিছুদিন যাবৎ পারিবারিক ব্যাপার নিয়ে কলহ ছিল। হয়ত মায়ের সাথে অভিমান করে আত্মহত্যা করতে পারে। এ সময় নিহত হাফেজ মো: মিলন গাজী সাথে একটি চিরকুট পাওয়া যায়। তাতে লিখা ছিল এ মৃত্যুর জন্য কেহ দায়ী নয়।

এসময় চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আসিফ মহিউদ্দিন, চাঁদপুর সদর মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ হারুনুর রশিদ, চাঁদপুর মডেল থানার এসআই ইকবাল, সিআইডির এসআই রাশেদ, পুলিশ অপারেশন অফিসার মো: নূরে আলমসহ পুলিশের বিভিন্ন টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর মডেল থানার এসআই ইকবাল দৈনিক চাঁদপুর খবরকে বলেন, আমরা আত্মহত্যার ঘটনা শুনে দ্রুত সেখানে যাই। সেখানে গিয়ে মরদেহ ঝুলন্ত দেখতে পাই। পরে আমরা ডোমের সহায়তায় লাশ মাটিতে রাখি। প্রাথমিক ভাবে আত্মহত্যা করেছে বলে মনে হয়। তবে মৃতদেহের রানে কালো দাগ ও রক্তের দাগ রয়েছে। এ ব্যাপারে বিস্তারিত জেনে ও তদন্ত করে পরবতী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়।

উল্লেখ, মরহুম হাফেজ মিলন গাজীরা ৪ভাই, ২বোন। তিনি ভাইদের মধ্যে তৃতীয়। মৃত্যুকালে তিনি মা, বাবা, স্ত্রী, ১কন্যা সন্তান, ৩ভাই ও ২ বোন রেখে গেছেন।

একই রকম খবর