শিক্ষার্থীদের শেখাতে হবে আনন্দের মাধ্যমে : শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি

ঢাকা অফিস : শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ‘ক্লাস পরীক্ষার চাপে শিক্ষার্থীদের শেখার অনেক জায়গা হারিয়ে গেছে। আমরা সেই জায়গাগুলো ফিরিয়ে আনতে চাই। আমাদের শেখাটা যেন হয় সক্রিয় শিখন। শেখাটা যেন হয় অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে।

শনিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনে বিজ্ঞান ক্লাবের আয়োজনে অষ্টম জাতীয় গণিত অলিম্পিয়াডের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের শেখাতে হবে আনন্দের মাধ্যমে। যদি কোনো বিষয় আনন্দ নিয়ে শেখা যায়, তাহলে তার চারপাশের পরিবেশ আরো সুন্দর হয়ে ওঠে। আনন্দের সাথে শিখলে নতুন দক্ষতা গড়ে উঠবে। শিক্ষকের মূল যে দায়িত্ব তা হলো শিক্ষার্থীদের অনুসন্ধিৎসু করে তোলা। শিক্ষার্থীদের ভেতর জ্ঞানের পিপাসা জাগিয়ে তোলা। বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশল ও গণিতের মাধ্যমে শিল্প বিপ্লবের যে সময় আমরা পার করছি, এটিকে পূর্ণাঙ্গ করতে হলে মানবিকতাকে স্থান দিতে হবে। ’

নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে তিনি আরো বলেন, ‘অনেকেই এখন নতুন শিক্ষানীতি নিয়ে সমালোচনা করে। কিন্তু এই শিক্ষাক্রম এমনভাবে সাজানো হয়েছে যেন পাঠ্যপুস্তক আনন্দের হয়, ভাষাগুলো প্রাঞ্জল হয়। কারণ বই এখন জ্ঞানের একমাত্র মাধ্যম নয়। এই শিক্ষাক্রমে শিক্ষার্থীদের শিখন উপযোগী করেই সব করা হয়েছে। ’

এর আগে সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়েন্স ক্লাব (জেইউএসসি) আয়োজিত অষ্টম জাতীয় গণিত অলিম্পিয়াড-২০২২-এর বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ডা. দীপু মনি।

শ্রেণি বিভাজনের ভিত্তিতে এবারের অলিম্পিয়াডে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সাতটি ক্যাটাগরি ছিল। এতে দেশের ২০০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে চার হাজার ৬০০ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। প্রতিটি ক্যাটাগরিতে সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়া প্রথম পাঁচজনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। সে হিসাবে সাত শ্রেণি থেকে ৩৫ জনকে পুরস্কৃত করা হয়েছে।

এতে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে প্রথম হয়েছে রাজধানীর সেন্ট গ্রেগরি স্কুল অ্যান্ড কলেজের নাফিস নিলয়, সপ্তম শ্রেণি থেকে প্রথম হয়েছে ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজের ইশরার মাহমুদ শামিম, অষ্টম শ্রেণি থেকে প্রথম হয়েছে রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের শিক্ষার্থী মো. ফারহান আবরার খান।

নবম এবং দশম শ্রেণি থেকে যথাক্রমে প্রথম হয়েছে অ্যাসেড স্কুলের মো. নুর ই হাসান নিলয় এবং মনিপুর উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাহিন আলম। এ ছাড়া একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণি থেকে যথাক্রমে প্রথম হয়েছে ধামরাই সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী মো. সুলতান মাহমুদ এবং বিপিএটিসি স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী ফাহিম মুনতাসীর মাহিম।

গণিতবিদ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি লায়েক সাজ্জাদ এন্দেল্লাহ বলেন, ‘গণিত অলিম্পিয়াড কোনো প্রতিযোগিতা নয়, এটি একটি উৎসব। গণিত চর্চার মাধ্যমেই দেশের বিজ্ঞানভিত্তিক উন্নয়ন সম্ভব। খুদে গণিতবিদদের বড় হয়ে দেশের স্বার্থে কাজ করতে হবে। ’

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্ব এবং সাহসিকতায় পদ্মা সেতু বাস্তবায়ন হয়েছে, মেট্রো রেল হয়েছে। তিনি দেখিয়েছেন আমরাও পারি। ২০৪১ সালে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তুলবেন। দেশে এমন কোনো জায়গা নেই যেখানে উন্নয়ন হয়নি। জাবিতেও উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। ১৪৪৫ কোটি টাকা বাজেট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী, যা কোনো সরকার দিতে পারেনি। ’

জাবি সায়েন্স ক্লাবের সেক্রেটারি আরিফুল ইসলাম আরিফের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সংসদ সদস্য বেনজির আহমেদ, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মো. শেখ মনজুরুল হক, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক রাশেদা আখতার, গাণিতিক ও পদার্থবিষয়ক অনুষদের ডিন অজিত কুমার মজুমদার, ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক এ এ মামুন, ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের পরিচালক মোহাম্মদ আলমগীর কবির প্রমুখ।

 

একই রকম খবর