স্কুলে যাওয়া হলো না সহকারী প্রধান শিক্ষিকা নাজমা আক্তারের

চাঁদপুর খবর রিপোর্ট : প্রতিদিনকার মতো সিএনজি চালিত অটোরিকশায় চরে স্কুলে যাচ্ছিলেন চাঁদপুর সদর উপজেলার উত্তর শাহতলী জোবাইদা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষিকা নাজমা আক্তার (৫৫)।

কিন্তু পথে বিপরীত দিক থেকে আসা বোগদাদ বাস সিএনজিটিকে চাপা দিলে দুমড়ে-মচড়ে রাস্তায় ছিটকে পড়ে তাকে বহনকারী সিএনজিটি। সৌভাগ্যক্রমে চালক অক্ষত থাকলেও ঘটনাস্থলেই নিহত হন শিক্ষিকা নাজমা আক্তার। পরে স্থানীয়রা চাঁদপুর সদর হাসপাতালে আনলে চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন। আর কখনো যাওয়া হবে না তার নিজ কর্মস্থল বিদ্যালয়ে যাওয়ার । আর ৩৩ বছর অত্র বিদ্যালয়ের চাকুরী জীবনের ইতি ঘটলো । গতকাল ২১নভেম্বর (সোমবার) সকাল ১০টায় চাঁদপুরের ঘোষেরহাট এলাকায় এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ ঘাতক বাসটিকে জব্দ করে চাঁদপুর পুলিশ লাইনে নিয়ে আসে। এ বিষয়ে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী।

বোগদাদ বাসের চাপায় নিহত নাজমা আক্তার হাজীগঞ্জ উপজেলার কালচোঁ দক্ষিন ইউনিয়নের বাজনা খাল গ্রামের মৃত ফারুক আহমেদের স্ত্রী। চাঁদপুর শহরের শেরে বাংলা ছাত্রাবাসের কাছে বসবাস করতেন। তিনি মৃত্যুকালে ২ মেয়ে ও ১ ছেলেসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, নিহত নাজমা আক্তার ১৫ আগস্ট ১৯৮৯সালে উত্তর শাহতলী জোবাইদা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারি শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেন। তিনি ২২ জুন -২০১৩সালে অত্র বিদ্যালয়ে সহকারি প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। তিনি ৩৩বছর অত্র বিদ্যালয় শিক্ষকতা করেন।

দূর্ঘটনায় নিহত হওয়ার খবর পেয়ে সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো: কামাল হোসেন, বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী, শিক্ষক নেতৃবৃন্দ, শিক্ষকগণ, বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীগণ ও আত্মীয়স্বজনসহ শুভাকাঙ্খীরা হাসপাতালে ছুটে আসেন।

একই রকম খবর