হাইমচরে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে ভেসে গেছে পান ও মাছ চাষীদের স্বপ্ন

স্টাফ রিপোর্টার : করোনায় কারনে এমনিতেই সঠিক দাম না পেয়ে লোকসানে আছে চাঁদপুর হাইমচরের পান ও মাছ চাষিরা। এ উপজেলার কয়েক যুগের ঐতিহ্য পান চাষ। এবার চাষীদের ওপর ‘মরার উপর খাড়ার ঘা’ হয়ে দেখা দিয়েছে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে অপ্রত্যাশিত বন্যার পানি।

চাঁদপুরের হাইমচরে হঠাৎ জোয়ারের পানিতে প্লাবিত পানের বরজগুলোতে এখন হাঁটুপানি। ফলে আর্থিক ক্ষতির মুখে দিশেহারা সেখানকার পানচাষিরা। এদিকে উপজেলার চরভৈরবী ইউনিয়নের ১০ একর জমিতে তৈরী আখন মৎস্য খামারের প্রায় ২৫ লক্ষ টাকার মাছ পানিতে ভেসে গেছে। শত চেষ্টায় রক্ষা করতে পারিনি মৎস্য খামারী মোহাম্মদ আলী আখন।

জোয়ারের পানিতে ভেসে যাওয়ার দৃশ্য দেখে দু-চোখে শুধু পানি আর পানি দেখতে পায় এ খামারী। কোন কিছু জিজ্ঞাসা করলে বলে সব চলে গেলো আচমকা। হাইমচর উপজেলা সবচেয়ে বড় মৎস্য খামারটি বুধবার আকস্মিক জোয়ারের পানিতে ভেসে যায়।

জীবনের সব কিছু বিক্রয় করে ব্যাংক থেকে লোন তুলে তৈরী করেন মৎস্য খামার। নদীর পানিতে ভেসে গেলে এ খামারীর বেচে থাকার সকল স্বপ্ন। উপজেলার মধ্যে প্রশিক্ষিত ও আত্নকর্মী ছিলেন মোহাম্মদ আলী আখন। নিজের ১০ একর জমিতে ১০টি ঝিলে প্রায় ২০ জন শ্রমিক কাজ করতো। এ সকল পরিবার আজ অসহায় অবস্থায় রয়েছে।

একই রকম খবর