হাইমচর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নূর হোসেন পাটওয়ারী ফের নির্বাচিত

মো. ইসমাইল হোসেন হাইমচর : গতকাল ১৩ জানুয়ারী চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী (নৌকা মার্কা)বর্তমান চেয়ারম্যান মো. নুর হোসেন পাটওয়ারী।

তিনি পেয়েছেন ১৬২৪৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী আনারস মার্কার আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মোতালেব জমাদার পেয়েছেন ১১৮৩২ ভোট। মোট ৪৪১৭ ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী (নৌকা মার্কা)মো. নুর হোসেন পাটওয়ারীকে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত ঘোষনা করা হয়েছে ।অপর দিকে নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী (ধানের শীষ) মো.ইসহাক পেয়েছেন ৪০৬৩ ভোট।

এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন (মাইক) ১৯১৬৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী (ধানের শীর্ষ) ৮৪৬৪ ভোট পেয়েছে। তালা মার্কার প্রার্থী মোঃ কামরুল হাসান বেপারী পেয়েছে ২৭০৯ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহনাজ বেগম (হাঁস মার্কা) ১৭২৬৮ ভোট পেয়েছে। ধানের শীর্ষ প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীকে ফাতেমা বেগম পেয়েছে ১৫৬৭৩ ভোট। সোমবার (১৩ জানুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত উপজেলার ৩১টি কেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতিতে এই প্রথম চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

চাঁদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. হেলাল উদ্দিন বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। নির্বাচনে ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, ৮জন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ও ২জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্ব›দ্বীতা করেন। ভোটার সংখ্যা ছিলো ৮০ হাজার ২৩৪ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৪১ হাজার ৪১৭ জন এবং নারী ভোটার ৩৮ হাজার ৮১৭ জন।

প্রাপ্ত্র ফলাফলে আওয়ামীলীগ মনোনীত নূর হোসেন পাটওয়ারী নৌকা প্রতীক নিয়ে ১৬ হাজার ১শত ৫১ ভোট পান, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী মোতালেব জমাদার আনারস প্রতীক নিয়ে ১১ হাজার ৭শত ২৩ ভোট পান। ভোটের ব্যবধান ৪৪২৮। ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ইসাহাক খোকন ৪ হাজার ২শত ১৭ ভোট পান। ভাইস চেয়ারম্যান পুরুষ মাইক প্রতীক নিয়ে জাহাঙ্গীর হোসেন বেপারী ১৯ হাজার ১শত ৬৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছেন ৮হাজার ৪শত ৪৬ ভোট। স্বতন্ত্র প্রার্থী তালা প্রতীকের কামরুল ইসলাম পেয়েছেন ২৭শত ৯ ভোট।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হাঁস প্রতীক নিয়ে ১৭ হাার ২শত ৬৮ ভোট পেয়ে জয় লাভ করেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী ধানের শীষের প্রার্থী ১৪ হাজার ৬শত ৭৩ ভোট পেয়ে পরাজীত হন। ৩ স্তরের নিরাপত্তায় তিন প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাবের ১০টি মোবাইল টিম, বিপুল পরিমান পুলিশ এবং আনসার সদস্য নির্বাচনি মাঠে কাজ করেছেন।

ভোটারদের উৎসব মুখর পরিবেশে নিজের পচন্দের প্রার্থীকে ভোট প্রদান করতে পারায় মহা খুশি হতে দেখা গেছে। অত্যান্ত সুখ্য পরিবেশে নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ায় কুয়াশার ভিতর দিয়ে নারী-পুরুষ ভোটারগন ভোট কেন্দ্রে হাজির হয়ে তাদের পচন্দের প্রার্থীকে ভোট প্রদান করেছেন। হাইমচর উপজেলা বাসী এবং সম্মানীত ভোটারগনের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে এক প্রতিক্রিয়া চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটওয়ারী বলেন, আমার প্রিয় হাইমচর বাসী উন্নয়নের জোয়ারকে আরো

গতিশীল করতে এবং ডা. দীপু মনি এমপির হাতকে শক্তিশালী করতে যে ভোট বিপ্লব দেখিয়েছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়। নৌকার বিজয় মানে উন্নয়নের বিজয়। এ বিজয় পুরো হাইমচর বাসীর বিজয়। ভোটারদের দেয়া আমানত আমি আমার জীবন দিয়ে হলেও রক্ষা করবো। ইতিপূর্বে আমি হাইমচর বাসীর সুখ দুঃখ ভাল মন্দে ছিলাম। আগামী দিনে আমি হাইমচর বাসীর সকল উন্নয়নমূলক কাজে কর্মে অংশীদার হবো।

একই রকম খবর