হাজীগঞ্জে বিক্রি হওয়া দুই কন্যা সন্তান ফিরলো বাবা-মায়ের কোলে

সাইফুল ইসলাম সিফাত : চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে বিক্রি হওয়া দুই কন্যা সন্তানকে বাবা-মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিলো পুলিশ।
বুধবার দুপুরে দুই কন্যা সন্তান রিয়া ও ইভাকে তাদের জন্মধারিণী মা জান্নাত বেগমের কোলে তুলে দিলো হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার দুই মেয়েকে বিক্রি করে বিদ্যুৎ বিলের টাকা পরিশোধ করলেন এক বাবা- শিরোনাম স্থানীয় প্রিন্ট, অনলাইন ও জাতীয় টিভি চ্যানেলে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে হাজীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ জোবায়ের সৈয়দ ও উপ-পরিদর্শক ইউনুছ মঙ্গলবার দিবাগত রাতে অভিযান পরিচালনা করে পৃথক দুটি স্থান থেকে দুই সন্তানকে উদ্ধার করেন।

হাজীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ জোবায়ের সৈয়দ জানান, সন্তান দত্তক দেয়াটা তাদের রাষ্ট্রীয় বিধানানুযায়ী হয়নি। দুই সন্তানকে ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন হেলালের উপস্থিততে তাদের মা-বাবার কাছে তুলে দেয়া হয়েছে।

দুই সন্তানকে কাছে পেয়ে মা জান্নাত বেগম গণমাদ্যম কর্মীদেও প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন সন্তানদের কাছে পেয়ে আজ বড় শান্তি পাচ্ছি।

বাবা এমরান হোসেন বলেন, অভাব অনটনে পড়েছি। তাই এই ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সন্তানদের কাছে পেয়ে ভালো লাগছে।
এদিকে রিয়াকে লালনপালন করার পরিবার বলছেন, রিয়াকে নেয়ার পর খাট থেকে পড়ে পা ভাঙ্গে। তারপর ঢাকায় চিকিৎসা করে কয়েক লাখ টাকা খরচা হয়েছে।

জানতে চাইলে উপ-পরিদর্শক ইউনুস বলেন, চাঁদপুর সদর উপজেলার ৫নং রামপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ আলগী এলাকার প্রবাসী মোতালেবের ঘর থেকে সিরাতুন মুনতাহা ওরফে ইভাকে (৫) এবং ফরিদগঞ্জ উপজেলার মান্দারতলী ভূইয়া বাড়ির বাবুল ভূইয়ার ঘর থেকে রিয়া (৩) কে উদ্ধার করা হয়। দুই সন্তানের বাবা এমরান হোসেন ও মা জান্নাত বেগম। তাদের গ্রামের বাড়ী হাজীগঞ্জ উপজেলার ৭ নং বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়নের নাটেহরা।

গেল ২০২০ সালের শেষের দিকে ৪০ হাজার টাকা করে পৃথক স্থানে দুই কন্যাকে ৮০ হাজার টাকায় বিক্রি করেন বাবা এমরান হোসেন। ওই সময় মা জান্নাত বেগমকে চট্টগ্রামে গার্মেন্টসের চাকরিতে ছিলেন। তাকে না জানিয়ে দুই সন্তানকে বিক্রি করেন বাবা।

রিয়া ও ইভা হয়তো গেলো দুই বছরে লালনপালন ও আদরের মা পেয়েছেন। এবার পেয়েছেন তাদের জন্মধারিণী মা। দুই কন্যা সন্তান বেড়ে উঠুক আপন মায়ের আদর স্নেহ আর ভালোবাসায়।

একই রকম খবর