হেলথ এডুকেটর জাকিরের বিরুদ্ধে নার্সকে শ্রীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগ

চাঁদপুর খবর রির্পোট : চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে হেলথ এডুকেটর জাকিরের বিরুদ্ধে দায়িত্বরত নার্সকে শ্রীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় হাসপাতালে সেই নার্স বাদী হয়ে তত্ত্বাবধায়কের বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে সহকারী পরিচালক ডাক্তার সাজেদা পলিনকে প্রধান করে জেলা বিএমএ সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার মাহমুদুন্নবী মাসুম, ডাক্তার সুজাউদ্দিন রুবেল, ডাক্তার হাসিবুল হাসান চৌধুরী ও নার্স প্রতিনিধি প্রতিভা রানীকে নিয়ে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে জানা যায়, সরকারি হাসপাতালে হেলথ এডুকেটর জাকির তৃতীয় তলায় ৩০৮ নাম্বার নার্সিং সুপারভাইজার অফিসে দায়িত্বরত এক নার্সকে একা পেয়ে জড়িয়ে ধরে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। সে ডাক চিৎকার দিলে তাকে ছেড়ে দিয়ে দ্রুত রুম থেকে বের হয়ে পালিয়ে যায়।

ঘটনাটি তাৎক্ষণিক সেই নার্স তার সহকর্মীদের জানিয়ে অবশেষে সুষ্ঠু বিচার পাওয়ার লক্ষে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মাহবুবুর রহমানের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথেই তত্তাবোধয়ক পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে এর প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

এদিকে অভিযুক্ত সরকারি হাসপাতালে হেলথ এডুকেটর জাকির অভিযোগকারী নার্সের পা ধরে মাফ চায় ও আর কখনো এ ধরনের কর্মকাণ্ড করবে না বলে জানায়।

হাসপাতালে নার্সকে শ্রীলতাহানি অভিযোগ বিষয়ে তত্তাবোধক মাহবুবুর রহমান জানান, হাসপাতালে হেলথ এডুকেটর জাকিরের বিরুদ্ধে কর্মরত এক নার্সকে শীলতাহানি করেছে বলে লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি গঠন করে পাঁচ দিনের মধ্যে তার প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। কমিটির প্রতিবেদন অনুযায়ী পরবর্তীতে অভিযুক্ত জাকিরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। হাসপাতলে এই ধরণের কর্মকান্ড কোন অবস্থাতেই ছাড় দেওয়া হবে না।

বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে তাদের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এদিকে হাসপাতালে নার্সকে শ্রীলতাহানি চেষ্টা করেছে এই অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযুক্ত হেলথ এডুকেটর জাকির হোসেনকে বাঁচাতে কিছু দালাল চক্র উঠে পড়ে লেগেছে। ঘটনার পরে নিজের চাকরি বাঁচাতে জাকির হোসেন ছুটি নিয়ে ঢাকায় বর্তমানে অবস্থান করছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত জাকিরের বিরুদ্ধে সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগী নার্স।

একই রকম খবর